মোহাম্মদ আসাদ আলী

লেখক পরিচিতি

নাম: মোহাম্মদ আসাদ আলী
নিবন্ধন তারিখ: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৩
URL: https://www.facebook.com/asadali.ht

Biography

দৈনিক বজ্রশক্তি পত্রিকার সহকারী সাহিত্য সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। সাংবাদিকতার পাশাপাশি বিভিন্ন ব্লগে ইসলাম, পাশ্চাত্য সভ্যতা ও দর্শন, সমাজ, দেশ, আস্তিকতা, নাস্তিকতা ও আন্তর্জাতিক ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে লেখালেখি করার চেষ্টা করি। সদালাপ আমার অত্যন্ত পছন্দের ব্লগ। সদালাপের মতো মার্জিত রুচিসম্মত বাংলা ব্লগ আমার দৃষ্টিতে দ্বিতীয়টি নেই। আশা করি এখানকার ব্লগার ও পাঠকগণ আমাকে সস্নেহে গ্রহণ করে নেবেন। মানুষ হিসেবে জন্মগ্রহণ করেছি, মানুষ হিসেবে বেচে আছি, কাজেই আমাকে মানুষ হিসেবে স্রষ্টা যে দায়িত্ব বেধে দিয়েছেন তা পালন করতেই হবে। মানবজনম যেনতেন ব্যাপার নয়। একটি মানবজনমের মূল্য অনেক। সেই জনমকে স্বার্থক করাই আমার লক্ষ্য, আমার মিশন, আমার ভিশন। আল্লাহ আমার সহায় হোন।

সাম্প্রতিক লেখাসমূহ

  1. জৈবিক চাহিদা মেটানোই কি মানবজীবনের লক্ষ্য? — মার্চ ৯, ২০১৭
  2. হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব ০২ — ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৭
  3. সদালাপে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব — জানুয়ারী ২২, ২০১৭
  4. রাষ্ট্র থেকে ধর্মকে কি আলাদা করা সম্ভব? — জানুয়ারী ১৭, ২০১৭
  5. রোহিঙ্গা নির্যাতন ও মুসলিম জাতির করণীয় — জানুয়ারী ৪, ২০১৭

সর্বোচ্চ মন্তব্যপ্রাপ্ত লেখাসমূহ

  1. সদালাপে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব — ৩৪ মন্তব্য
  2. হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব ০২ — ৩২ মন্তব্য
  3. ইসলাম গ্রহণের খবরে যারা খুশিতে বাকবাকুম হন — ২৬ মন্তব্য
  4. রাষ্ট্র থেকে ধর্মকে কি আলাদা করা সম্ভব? — ২২ মন্তব্য
  5. পৃথিবীর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিপ্লবী- বিশ্বনবী মোহাম্মদ (সা.) — ১৬ মন্তব্য

এই লেখকের লেখার লিস্ট

মার্চ ০৯

জৈবিক চাহিদা মেটানোই কি মানবজীবনের লক্ষ্য?

পশ্চিমা জড়বাদী সভ্যতার ডান চোখ অন্ধ বলে এই সভ্যতা জীবনের আত্মা ও পরকালের দিকটি একেবারেই দেখতে পায় না। কেবল বাম চোখ দিয়ে সে জীবনের একটি দিক, দেহের দিক, বস্তুর দিক দেখতে পায়। তাই বস্তু ও দেহ নিয়েই এই সভ্যতার যত মাথা ব্যথা, আত্মার ও নৈতিকতার অধঃপতন নিয়ে কোনো চিন্তার অবকাশ তার নেই। আজ এই সভ্যতা …

বিস্তারিত

ফেব্রু. ০১

হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব ০২

সদালাপে একের পর এক হেযবুত তওহীদের ব্যাপারে অপপ্রচারমূলক ব্লগপোস্ট করছেন এম আহমেদ। পূর্বে তার একটি ব্লগপোস্টে হেযবুত তওহীদের ব্যাপারে ভুল ধারণা প্রদান করায় ভিন্ন আরেকটি পোস্ট দিয়ে আমি তার জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম (লিংক- সদালাপে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব)। অতঃপর কিছুদিন অতিবাহিত হলে আমার ঐ জবাবমূলক পোস্টটিকে কেন্দ্র করে এম আহমেদ পুনরায় আরেকটি ব্লগপোস্ট করেন। দুঃখের …

বিস্তারিত

জানু. ২২

সদালাপে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের জবাব

মানুষ সৃষ্টির সূচনালগ্নে আল্লাহ যখন মালায়েকদের ডেকে বললেন আমি পৃথিবীতে আমার খলিফা সৃষ্টি করতে চাই, (বাকারা ৩০) তাতেই মালায়েকরা বুঝে গেল আল্লাহ তাঁর খলিফা বা প্রতিনিধি হিসেবে যে সৃষ্টিটি করতে চাচ্ছেন তার মধ্যে নিশ্চয়ই আল্লাহর রূহ থাকবে, আর যার মধ্যে আল্লাহর রূহ থাকবে তার মধ্যে আল্লাহর অন্যান্য সিফত বা গুণগুলোর মত স্বাধীন ইচ্ছাশক্তিও চলে আসবে। …

বিস্তারিত

জানু. ১৭

রাষ্ট্র থেকে ধর্মকে কি আলাদা করা সম্ভব?

গতকাল একটি টেলিভিশন চ্যানেলের টকশোতে একজন নিরাপত্তা বিশ্লেষক বললেন, ধর্মকে রাষ্ট্র থেকে সম্পূর্ণভাবে মুক্ত করতে হবে। ধর্ম থাকবে মনের ভেতরে এবং মসজিদের মত পবিত্র জায়গায়। তাই রাষ্ট্রীয় অঙ্গনে ধর্মের প্রবেশ নিষিদ্ধ করতে হবে। তাহলেই নাকি অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে। রাষ্ট্র থেকে ধর্মকে মুক্ত করার মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ যদি গড়া যায় তাতে আমার …

বিস্তারিত

জানু. ০৪

রোহিঙ্গা নির্যাতন ও মুসলিম জাতির করণীয়

দক্ষিণে বাংলাদেশের শেষ সীমানা টেকনাফের নাফ নদী। এই নদীটি পেরোলেই মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য। বাংলাদেশসহ সারা পৃথিবীর মানুষের দৃষ্টি এখন এই রাখাইনে। কারণ ঠিক এই মুহূর্তে সেখানে মানবজাতির ইতিহাসে আরেকটি কলঙ্কজনক অধ্যায় রচিত হচ্ছে। দেশ-কাল সম্পর্কে ন্যূনতম খোঁজ-খবর রাখেন যারা তাদেরকে বলে দিতে হবে না নাফ নদীর ওপারে কী অবর্ণনীয় দুর্দশা নেমে এসেছে সেখানকার হাজার বছরের …

বিস্তারিত

জানু. ০২

ইসলাম গ্রহণের খবরে যারা খুশিতে বাকবাকুম হন

আপনি অনেক ভালো বক্তা। ইসলামে অগাধ পাণ্ডিত্য। কোর’আন-হাদীসের লাইন বাই লাইন না দেখে পড়ে যেতে পারেন। আপনার কোটি কোটি ভক্ত। যুক্তিবিদ্যায় বড়ই দখল আপনার। আপনার দাওয়াত পেয়ে ইউরোপ-আমেরিকায় ইসলাম গ্রহণের হিড়িক পড়ে। হাজার হাজার মানুষ আপনার কথায় মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ করে মুসলমান হচ্ছে। এ জন্য মুসলিম বিশ্বে আপনার বিরাট নাম-ডাক। কিন্তু ভাইজান, আপনার এই …

বিস্তারিত

ডিসে. ১৪

জীবন কী? আসুন বোঝার চেষ্টা করি

মানুষ একা থাকতে পারে না। মানুষকে রাষ্ট্র, সমাজ ও পরিবারে আবদ্ধ হয়ে বসবাস করতে হয়। একজনের চাহিদা অন্যজনকে পূরণ করতে হয়। তার চাহিদা আবার আরেকজন পূরণ করে। একে অপরের মায়ায় আবদ্ধ হয়। একের দুঃখ অপরকে পীড়া দেয়। একের আনন্দ অন্যের মুখে হাসি ফোটায়। সবই ঠিক আছে। কিন্তু দিনশেষে একটি নির্মম বাস্তবতা আমরা অস্বীকার করতে পারি …

বিস্তারিত

নভে. ১৩

ইসলামী রাজনীতির ব্যর্থতা: গলদ কোথায়? (পর্ব ০৯)

রসুল (সা.) যখন তওহীদের ভিত্তিতে সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে ঐক্যের ডাক দিলেন মক্কায় তখন কিন্তু হাজারো সমস্যা। অশিক্ষা, কুশিক্ষা, অনৈক্য, দারিদ্র্য, মাদক, নারী নির্যাতন, চুরি-ডাকাতিসহ শত শত সামাজিক ও জাতীয় সমস্যা তখন আরব সমাজকে গিলে খাচ্ছিল। কিন্তু ওসব সমস্যার সমাধান করা নিয়ে আল্লাহর রসুল খুব ব্যতিব্যস্ত হয়েছিলেন বলে ইতিহাসে পাওয়া যায় না। এখানেই বর্তমানের ইসলামী …

বিস্তারিত

নভে. ১০

ধার্মিক তৈরির শিক্ষাব্যবস্থা ও প্রাসঙ্গিক কিছু কথা

আমাদের সমাজে ডাক্তারের দরকার আছে, সুতরাং ডাক্তারী শিক্ষার বিকল্প নেই, ইঞ্জিনিয়ারের দরকার আছে, সুতরাং ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাও লাগবে। আবার আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে চাইলে যে কোনো জাতিরই অত্যাধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিজ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ জনশক্তি দরকার হয়, যার জন্য বিজ্ঞানমুখী শিক্ষাব্যবস্থার কোনো বিকল্প নেই। এছাড়াও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, শিল্প-সাহিত্য, ইতিহাস, অর্থনীতি ইত্যাদি বিষয়ে মৌলিক জ্ঞান প্রত্যেকের থাকা …

বিস্তারিত

অক্টো. ২৯

পৃথিবীর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিপ্লবী- বিশ্বনবী মোহাম্মদ (সা.)

প্রাক ইসলামী আরবরা ছিল ভিখিরির জাত। ন্যূনতম সামরিক শক্তি, অর্থনৈতিক শক্তি, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, নৈতিকতাবোধ, সামাজিক ও পারিবারিক বন্ধন, জ্ঞান-বিজ্ঞানের চর্চা, মানবিক উৎকর্ষতা, পারস্পরিক ভ্রাতৃত্ব, ঐক্যচেতনা ইত্যাদি কিছুই তাদের ছিল না। শুধু ছিল বংশানুক্রমিক গৃহযুদ্ধ, গোত্রে গোত্রে হানাহানি, রক্তারক্তি, শত্রুতা, সীমাহীন অজ্ঞানতা, কুসংস্কার, ধর্মবাণিজ্য, জেনা-ব্যাভিচার, চুরি, ডাকাতি, লুটতরাজ, হুজুগপ্রবণতা, মাদকাসক্তি, দাসপ্রথা, কন্যাশিশু হত্যা, নারী নির্যাতন ইত্যাদি। …

বিস্তারিত

অক্টো. ১৯

‘ইসলামী রাজনীতি’র ব্যর্থতা: গলদ কোথায়? (পর্ব ০৮)

[লেখাটি এতদিন ‘ইসলামী রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি’ এই শিরোনামে প্রকাশিত হচ্ছিল। এখন থেকে ‘‘ইসলামী রাজনীতি’র ব্যর্থতা: গলদ কোথায়?’’ এই শিরোনামে প্রকাশিত হবে। শিরোনাম পরিবর্তনের ফলে লেখাটির যে নিয়মিত পাঠকরা সাময়িক অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছেন তাদের কাছে আমি আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী।] (পূর্ব প্র্রকাশের পর) মানুষ সৃষ্টির বিরুদ্ধে যুক্তি হিসাবে মালায়েকরা এ কথা বলেন নি যে মানুষ মন্দিরে, মসজিদে, গীর্জায়, প্যাগোডায়, সিনাগগে যেয়ে তোমার …

বিস্তারিত

অক্টো. ১৩

কারবালা: উম্মতে মোহাম্মদীর ব্যর্থতার পরিণতি

আজ থেকে ১৩৭৬ বছর আগে ইরাকের কারবালার প্রান্তরে সপরিবারে নবীজীর প্রিয় দৌহিত্র হোসাইনের (রা.) বিষাদময় শাহাদাৎ বরণের ঘটনা ইসলামের ইতিহাসের এক মর্মান্তিক অধ্যায় হয়ে আছে। এই দিনটিতে শিয়া সম্প্রদায় তাজিয়া মিছিলসহ বিভিন্ন মিছিল, মাতম ও শোকানুষ্ঠান আয়োজন করে থাকে, ‘হায় হোসেন হায় হোসেন বলে’ বুক চাপড়ে, নিজের শরীর নিজে রক্তাক্ত করে শোক প্রকাশ করে। অন্যদিকে …

বিস্তারিত

অক্টো. ১৩

‘ইসলামী রাজনীতি’র ব্যর্থতা: গলদ কোথায়? (পর্ব ০৭)

. . . পূর্ব প্রকাশের পর . . . মানবজীবনে শান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার কাজটি কেবল আখেরী নবী নয়, তাঁর পূর্বের নবী-রসুলগণও করে গেছেন। বিশ্বনবীর সাথে অন্যান্যদের পার্থক্য কেবল এই যে, অন্যান্যদের দায়িত্ব ছিল সীমিত পরিসরে, যার যার এলাকায় সীমাবদ্ধ, আর শেষ নবীর দায়িত্ব সমস্ত পৃথিবীময়। কিন্তু কাজ সবারই এক, সেটা হচ্ছে মানবজীবনে ন্যায়, সুবিচার, …

বিস্তারিত

অক্টো. ০৮

‘ইসলামী রাজনীতি’র ব্যর্থতা: গলদ কোথায়? (পর্ব ০৬)

……পূর্ব প্রকাশের পর…… মানবজীবনের সর্বাঙ্গনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই ইসলামের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য এবং সেই উদ্দেশ্য অর্জন করতে আল্লাহর রসুল কতটা নিষ্ঠার সঙ্গে সংগ্রাম করে গেছেন তা আজও বিস্ময়কর ইতিহাস হয়ে আছে। উদাহরণ মদীনা সনদ। ইসলামপূর্ব মদীনার অবস্থা কত ভয়াবহ ও যুদ্ধসংকুল ছিল তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিছুদিন পূর্বেই মদীনার আওস ও খাজরাজ গোত্র …

বিস্তারিত

সেপ্টে. ৩০

‘ইসলামী রাজনীতি’র ব্যর্থতা: গলদ কোথায়? (পর্ব ০৫)

(পূর্ব প্রকাশের পর) শেষ নবী মোহাম্মদ (সা.) এর আগমনের উদ্দেশ্য কী ছিল এ প্রশ্নটির উত্তর যদিও পূর্বে বলে এসেছি এখানে চেষ্টা করব আরেকটু বিস্তারিত আলোচনায় যেতে। বর্তমান অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় যেন বিশ্বনবীর আগমনের উদ্দেশ্য ছিল নাস্তিকদেরকে আস্তিকে পরিণত করা, বিধর্মীদের মূর্তি ধ্বংস করা, রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করা, জবরদস্তিমূলক সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করা ইত্যাদি। যারা ইসলামকে পুনঃপ্রতিষ্ঠার স্বপ্ন …

বিস্তারিত

আরো পূর্বের লেখাসমূহ «