আরিফ

লেখক পরিচিতি

নাম: আরিফ হোসেন
নিবন্ধন তারিখ: নভেম্বর ১৩, ২০১৩

Biography

A FIGHTER PLAIN OF ISLAM

সাম্প্রতিক লেখাসমূহ

  1. নাস্তিকরা কি আদৌ কার উপাসনা করে? — জুন ২৯, ২০১৬
  2. মুক্তমনা ওয়াশিকুর বাবু আসলে কী লিখতেন ফেসবুকে — মার্চ ৩১, ২০১৫
  3. মূর্খ আস্তিক বনাম যুক্তিবাদী মুক্তচিন্তক — মার্চ ২৩, ২০১৫
  4. তসলিমা নাসরিন আর আসিফ মহিউদ্দিন – মুক্তচিন্তা না মুখোশ! — সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৪
  5. কাজী রায়হান রাহী ও উল্লাস দাস, “বড়ভাই” ও মগজধোলাই — এপ্রিল ২, ২০১৪

এই লেখকের লেখার লিস্ট

জুন ২৯

নাস্তিকরা কি আদৌ কার উপাসনা করে?

নাস্তিকদের একটি জোড়াল দাবী হচ্ছে তারা কারো এবাদত, আরাধনা , উপাসনা বা দাসত্ব করে না। শুধুমাত্র যুক্তি-প্রমাণ আর বিজ্ঞানের তথ্য উপাত্তের মাধ্যমে প্রমাণিত বিষয়গুলোকেই তারা গ্রহন আর বিশ্বাস করে। আর বাকি সবকিছু যতক্ষণ নিজের বুদ্ধি-বিবেচনায় লজিক্যাল মনে না হচ্ছে ততক্ষণ গ্রহন করে না । কিন্তু প্রতিটি মানুষের জীবনই কোন না কোন ছক বা কাঠামকে অনুসরন করে আবর্তিত …

বিস্তারিত

মার্চ ৩১

মুক্তমনা ওয়াশিকুর বাবু আসলে কী লিখতেন ফেসবুকে

ওয়াশিকুর বাবু তার ফেসবুক প্রফাইল পিকচারে লিখেছিলেন #iamavijit. তিনি নিজেকে মুক্তমনা ভাবতেন। আর "মুক্তমনা", "বিজ্ঞানমনস্ক", "মুক্তচিন্তক" হতে হলে "ইসলামবিদ্বেষী" না হলে আর উপায় আছে!! ওয়াশিকুর বাবুও তার ব্যতিক্রম ছিলেন না।  ২৭ বছর বয়সী ওয়াশিকুর তেজগাঁও কলেজ থেকে লেখাপড়া শেষ করে মতিঝিলের ফারইস্ট এভিয়েশন নামের একটি ট্র্যাভেল এজেন্সিতে প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করছিলেন। তার বাবার নাম টিপু সুলতান, বাড়ি লক্ষ্মীপুরের …

বিস্তারিত

মার্চ ২৩

মূর্খ আস্তিক বনাম যুক্তিবাদী মুক্তচিন্তক

মূর্খ আস্তিক— সব কিছুই আল্লাহ বানাইছে। যুক্তিবাদী মুক্তচিন্তক— তাহলে আল্লাহকে বানিয়েছে কে? মূর্খ আস্তিক— আল্লাহকে কেউ বানায়নি, তিনি অনাদি-অনন্ত, তারে কারও সৃষ্টি করা লাগে না। যুক্তিবাদী মুক্তচিন্তক— যত্তসব মূর্খের দল। আল্লাকে না বানালে সে কিভাবে অস্তিত্ব লাভ করে? আল্লাহ কি তাহলে একাকি সৃষ্টি হয়েছে? এসব অযৌক্তিক, অবৈজ্ঞানিক কথা-বার্তার কোন মূল্য আমাদের কাছে নেই। মূর্খ আস্তিক— …

বিস্তারিত

সেপ্টে. ২৮

তসলিমা নাসরিন আর আসিফ মহিউদ্দিন – মুক্তচিন্তা না মুখোশ!

তসলিমা নাসরিন, আসিফ মহিউদ্দিন নিজেদের উদারপন্থী মুক্তচিন্তার নাস্তিক হিসেবে দাবী করে থাকেন। তারা দীর্ঘদিন থেকেই মুক্তচিন্তার নামে ধর্মকে, বিশেষ করে ইসলামকে নানা ভাবে হেয় করে আসছেন। একজন মানুষ তখনই নিজেকে সুস্থধারার মুক্তচিন্তার দাবী করতে পারেন, যখন তার আচরনে কোন আক্রোশ বা বিদ্বেষ প্রকাশ না পেয়ে বরং যৌক্তিকভাবে তার অভিমত প্রকাশ পাবে। কিন্তু তসলিমা নাসরিন আর …

বিস্তারিত

এপ্রিল ০২

কাজী রায়হান রাহী ও উল্লাস দাস, “বড়ভাই” ও মগজধোলাই

কাজী রায়হান রাহী ও উল্লাস দাস সতেরো কি আঠারো বছর বয়েসের দুটি ছেলে। একজন হিন্দু, অপরজন মুসলিম নামধারী নাস্তিক। এইচএসসি পরীক্ষার্থী। সম্প্রতি অত্যন্ত অপ্রিতীকর ঘটনা ঘটে গেছে ওদের জীবনে। যতটুকু যানা গেছে ফেইসবুকে মুহাম্মদ (সা)কে নিয়ে অত্যন্ত আপত্তিকর মন্তব্য করায় এলাকার জনগণ কাজী রায়হান রাহী ও উল্লাস দাসকে প্রচণ্ড মারধোর করে এবং গণধোলাই দেয়। পরে …

বিস্তারিত

মার্চ ০৫

কেন কোরআনের মতো একটি গ্রন্থ মানুষের পক্ষে রচনা করা সম্ভব নয় (পর্ব-২)

এই বিংশ শতাব্দীতে কোরআন যে আল্লাহর বাণী সেটা দাবি করতে চাইলে, এমন কোন প্রমাণ পত্র থাকতে হবে যেটি নিশ্চিত ভাবে প্রমাণ করবে পবিত্র কোরআন আদৌ কোন মানুষের পক্ষে রচনা করা সম্বব নয়। পবিত্র কোরআনের সূরাগুলোর অসাধারন গাণিতিক বিন্যাস অত্যন্ত পরিষ্কার ভাবে প্রমাণ করছে যে , এই গ্রন্থটি মহা বুদ্ধিমান একজন ঈশ্বরের পক্ষ থেকে প্রেরিত এবং এটি …

বিস্তারিত

জানু. ২১

কেন কোরআনের মতো একটি সূরাও মানুষের পক্ষে রচনা করা সম্ভব নয় (পর্ব ১)

এখন বিংশ শতাব্দী। জ্ঞান-বিজ্ঞানের এক উন্নত শিখরে মানুষের অবস্থান। এই বিংশ শতাব্দীতে কোন আধুনিক মানুষ যদি জিজ্ঞাসা করে কোরআন যে আল্লাহ তথা ঈশ্বর প্রদত্ত গ্রন্থ- তার প্রমাণ কী? আমি-আপনি হয়ত এককথায় বলব—বিশ্বাস। অর্থাৎ, কোরআনের উপর বিশ্বাসের ভিত্তি হচ্ছে বিনা প্রমাণে, না দেখে এক আল্লাহর উপর বিশ্বাস। কিন্তু এই প্রযুক্তির যুগে একজন আধুনিক মানুষ কেন শুধুই বিশ্বাসের উপর …

বিস্তারিত

ডিসে. ০৯

হযরত আয়েশা (রা) – ইসলাম প্রচারে তাঁর ভুমিকা ও তাঁর মর্যাদা, পর্ব ২

রাসুল (সা) এর সাথে হযরত আয়েশা (রা) এর সহঅবস্থান দশ বছরের চাইতেও কম। আর এসময়ে তাঁর বয়সও মাত্র নয় থেকে আঠারোর মধ্যে। এত অল্প বয়সের একজন মেয়ের পক্ষে কোরআনের তত্ত্বজ্ঞান কতটুকুই বা উপলব্ধি করা সম্ভব? কিন্তু তিনি আসলে এক ব্যাতিক্রমী পরিপক্কতা ও মেধার অধিকারিনী ছিলেন। আর তাই অল্প বয়স হওয়া সত্তেও তিনি কোরআন, হাদীসের ব্যাক্ষ্যা, …

বিস্তারিত

নভে. ১৫

হযরত আয়েশা (রা): ইসলাম প্রচারে তাঁর ভুমিকা ও তাঁর মর্যাদা

রাসুল মুহাম্মদ (সা) এর স্ত্রীগনের মধ্যে হযরত আয়েশা (রা) সম্ভবত সবচেয়ে আলোচিত ব্যক্তিত্ব।তিনি একাধারে রাসুল (সাঃ) এর স্ত্রী ও আবু-বকর (রা) এর কন্যা। রাসুলের (সা) সাথে তাঁর মাত্র ৯ বছরে সংসার জীবন । রাসুলের (সা) ওফাতের পর ইসলামের ইতিহাসে তাঁর রয়েছেএক গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা।আমি ধারাবাহিক কয়েকটি পোস্টের মাধ্যমে হযরত আয়েশা (রা) এর ইসলামে অবদান ও তাঁর মর্যাদা নিয়ে …

বিস্তারিত