Category Archive: কবিতা

মে ২০

দৃশ্যাবলী / মফিজুল ইসলাম খান

বুকের উপর দিয়ে এই যে সড়ক এঁকে বেঁকে চলে গেছে দেশান্তরে সামনে তার ডবল সাবের বাঁক বাঁকের বাঁয়ে হিজলতলীর হাট । হাটের পা তলতল আনকিজলা জলার কিনার ঘেঁষে যদি যান দেখবেন মাথা নুয়ে দাঁড়িয়ে আছে এক জীর্ণ বিদ্যাপীট ন্যাড়া বটবৃক্ষ খোলামেলা বারান্দা যুগ যুগ অধিবাসী বেদেনীর দল কাচুলিবিহীন বুকের পাটাতন ভীষণ ক্রুদ্ধ পৃথিবী নিরব হলে …

বিস্তারিত

মে ১০

আল-মাহমুদের কবিতা

আমাদের মিছিল -আল মাহমুদ আমাদের এ মিছিল নিকট অতীত থেকে অনন্ত কালের দিকে আমরা বদর থেকে ওহুদ হয়ে এখানে, শত সংঘাতের মধ্যে এ কাফেলায় এসে দাঁড়িয়েছি। কে প্রশ্ন করে আমরা কোথায় যাবো ? আমরা তো বলেছি আমাদের যাত্রা অনন্ত কালের। উদয় ও অস্তের ক্লান্তি আমাদের কোনদিনই বিহবল করতে পারেনি। আমাদের দেহ ক্ষত-বিক্ষত, আমাদের রক্তে সবুজ …

বিস্তারিত

এপ্রিল ৩০

যেদিন যুদ্ধ এসেছিল

যে দিন যুদ্ধ এসেছিল, জানালার ফুলগুলি তখনো ছিল, এবং ছোট ভাইয়া, আব্বার মুখে ঘুম পোড়ানির গান শুনছিল, মা আমার, রান্না করছিল, আমার নাকে চুমু দিচ্ছিল, আমাকে ইস্কুলে নিয়ে পৌঁছে দিচ্ছিল।   সেদিন সকালে আমি অগ্নিগিরির সম্পর্কে জানলাম, সে দিন গান গেয়েছিলাম, কিভাবে ব্যাংগাচি ব্যাং হয়ে উঠল, আমি এঁকেছিলাম নিজের জন্য ডানা, দুপুরের খাবারের পর যখন …

বিস্তারিত

জানু. ৩০

স্বদেশ / মফিজুল ইসলাম

স্বদেশ তখন কাম্য ছিলো একটি আজন্ম ঠিকানার জন্য ছিলাম উন্মাদ । তাই হালের বলদ, লাঙ্গল জোয়াল, বাড়ি ঘর, বিষয় আশয়, পরিবার পরিজন ফেলে দিয়ে কাদাময় হাতে তুলে নিয়ে ছিলাম অস্ত্র যাবতীয় যুদ্ধ সরঞ্জাম । সাধের এই দেহ, দেহে লুকানো প্রাণ অবলীলায় সঁপে দিয়েছিলাম কামানের মুখে প্রেমের কথা নারীর কথা তার গোপন সম্পদের বাহারী চমক ছিলো …

বিস্তারিত

জানু. ১০

কাসেমের মা

কলেজ থেকে কাসেম আর গেলো না ফিরে তার ছোট্ট গাঁয়ে । কলেজ থেকে রাজপথ, রাজপথে মিছিল মিছিলে মিছিলে ঠাঁই পেলো সে রাজার জেলে । কাসেম আর গেলো না ফিরে তার ছোট্ট গাঁয়ে কাসেমের মা কেঁদে কেঁদে হয়রান আকুল ব্যাকুল । একদিন সকাল দশটা কাসেম এলো গঞ্জের কলেজে কলেজ থেকে রাজপথ, রাজপথে মিছিল বেলা গেলো রাত …

বিস্তারিত

ডিসে. ০১

মাফিয়ার বাপ/মফিজুল ইসলাম খান

স্বপ্ন দেখে কি আর হবে স্বপ্নতো স্বপ্নই থেকে, যায় ফল ধরে না আকাশে ঝুলে রূপালী চাঁদ – মাটিতে নামে না মেঘের আড়ালে হারিয়ে যায় মাফিয়ার বাপ স্বপ্ন দেখে কি আর হবে? গরিব মানুষের এই এক দোষ যখন তখন স্বপ্ন দেখেঃ তারা ভরা আকাশ জোসনাময় পৃথিবী আলোয় ঝলমল লাল পরী নীল পরী মায়া মায়া চোখ ধনীর …

বিস্তারিত

অক্টো. ২৫

তুমি রঙ্গিলা যাদুকর

কতোদিন খুঁজেছি তোমায় ভালোবাসার সবুজ বৃত্তে কতো রাত কেটেছে ব্যাকুল তোমার পথ পানে চাহিয়া কতো দিবস রজনী আমি করেছি গোসল দুই নয়নের তপ্ত জলে নূরের কারিগর এলে না তুমি আমার ঘরে, আমি পেলাম না তোমার মায়াময় নূরের ঝলক । জীবন পথের আঁকে বাঁকে কতোকাল ডেকেছি তোমায় শুন্যে তুলে জীর্ণ দুই হাত সোনা বন্ধু আমার লাল …

বিস্তারিত

অক্টো. ০৩

বুঝলো না কেউ

মনের দুঃখ আমি কারে বলি কারে দেই তার ভাগ বুঝলো না কেউ জ্বলে পুড়ে ছারখার তৃষিত হৃদয় জল দিলেও নেভে না এই অনলের ঢেউ । বুকের রক্ত মাখা প্রেম ভালোবাসা বিলিয়ে দিয়েছি সব পৃথিবীর বুকে সুখের খবর তবু ভাসে না বাতাসে বার বার ফিরে আসে পরাজিত বীর খালি হাত খালি পেট লক্ষ্যভ্রষ্ট তীর । বিলিয়ে …

বিস্তারিত

সেপ্টে. ২৬

অজাত পদ্ম

কূল নাই কিনার নাই জীবন নদীর জলে চলছি ভেসে অবিরাম আমি এক নাম গোত্রহীন অজাত পদ্ম আমার এবড়ো থেবড়ো দেহ, বিষের অনলে পোড়া দগদগে কপাল । নদীর এ পারে কাঁটা ওপারে বিষের শুল ওঁৎ পেতে আছে হায়েনার মতো কাছে পেলেই ছিন্নভিন্ন করে বসাবে ভাগা । আমি তাই নিরূপায় মাথায় লাল পট্টি বেঁধে ঘুরছি চরকির মতো …

বিস্তারিত

আগস্ট ১৮

মানুষ হওয়ার ইতিহাস!

  একটি বিপন্ন সভ্যতার পিঠে দাঁড়িয়ে অদ্ভুত স্বরে হাসছে আয়েশী বিকেল। সত্যিই সে এক বনেদী হাসি-যে হাসির পরাগরেণুতে ঝরে পড়ে পৃথিবীর গোপন ব্যথা! ক্ষমতার আত্মীকরণে বাষ্পের মতো উড়ে যাচ্ছে একেকটি প্রস্ফুটিত সকাল! মহাকালের মুখে কুলুপ এঁটে মানবতার ধ্বজা ধরে টানে বিরহী রাত। রাতের কালো শরীরে ক্রমশ মিশে যাচ্ছে স্বপ্নস্রোতের মৃদু উল্লাস, আজকালকের প্রেমও নাকি বিপন্ন …

বিস্তারিত

আগস্ট ১৩

যাবার ঠিকানা

অবাধ হাওয়া মাঝ রাতে নেশায় বিভোর চালকের বুকে ঢেউ তোলে সরাৎ সরাৎ । রসিক চালক চোখ বুজে নীলিমায় খোঁজে বলাকা যুগল ব্রেক ছিড়ে যায় । গন্ডা গন্ডা মৃত দেহ রাস্তার ধারে প্রহর কাটায় বেলা যায় । হাত পা ছড়িয়ে পড়ে থাকে লাশ সারি সারি কোথায় যে বাড়ি কোথায় যে ঘর কোথায় বাবা মা দারা পুত্র …

বিস্তারিত

জুলাই ১৯

দিওয়ানা

তুমি যদি পাখি হও আমি হবো নীলাকাশ আমার চাতালে তুমি উড়বে স্বাধীন থাকবে না ভয় ডর থাকবে না বাধা আমি তখোন কৃষ্ণ তুমি সখী রাধা । তুমি যদি বোট হও আমি হবো নদী তরতর বেগবান ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে যাবে নিরবধি মায়াবী হরিণী তোমাকে ছোঁবে না কেহ ঘুমের ঘোরে কেটেকুটে খাবে শুধু আমার দেহ । তুমি …

বিস্তারিত

জুলাই ১৪

তোকেই চাই হে কৃষ্ণকলি

আমার বাড়ির সামনে দিয়ে যখোন হেঁটে যাস্ তুই কাঁধে ঝুলিয়ে চক্চকে ব্যাগ হাতে মোবাইল মনোহর বারান্দায় বসে আমি তখোন পলকহীন কাজল কালো নয়নে দেখি তোর পথ চলা ঘাড় ছুঁই ছুঁই লম্বা চুল তার ছন্দিত নাচন । আমার আকাশ ছিলো শান্ত তোকে দেখার আগে রং বেরংয়ের ঘুড়িগুলো করেনি খেলা বৃষ্টিভেজা ঝিরঝির বাতাস মগ্ন চৈতন্যে তোলেনি সুরের …

বিস্তারিত

জুলাই ০৬

কথা দাও যদি

সমুদয় সম্পদ স্থাবর অস্থাবর তোমাকেই দেবো সখি কথা দাও যদি প্রথম প্রহরে দেবো পৈত্রিক প্রাণ । যদি চাও ভালোবাসা হবো লীন মন মাঝারে তোমার সুন্দরীগো তুলবো প্রেমের ঝড় তরতর উতাল সাগরে হবো আজন্ম বিলীন । কথা দিয়ে কথা রাখা ধর্ম আমার যাবো না সীমানা ছেড়ে মরণের আগে এলোমেলো হয় যদি আঙিনা তোমার কভু বৈশাখী ঝড়ে …

বিস্তারিত

জুন ১৫

জন্ম হবে কি সেই পুরুষের?

কি হচ্ছে এসব এই বাংলাদেশে যখন তখন ইচ্ছের ঘুড়ি উড়িয়ে ইচ্ছে মাফিক কখনো দিবালোকে কখনো সন্ধার মিয়ানো আঁধারে আবার কখনো বা গভীর রাতে কখনো জনসমুদ্রে কখনো নিরিবিলি বিবর্ণ মাঠের কোলে মরে যাওয়া নদীর কবরে গুম খুন বাসে ট্রাকে প্রকাশ্য গণধর্ষণ বসন ছিড়ে নারীর গোপন অঙ্গে স্পর্ধিত হস্ত চালন? কি হচ্ছে এসব এই বাংলাদেশে মাঝরাতের যানজটে …

বিস্তারিত

আরো পূর্বের লেখাসমূহ «

» Newer posts