«

»

জুন ২০

ঢাকার পথে

ঢাকায় যেতে যেতে বাসে বসে এক কাল্পনিক গল্প লিখলাম। গল্পটি কবিতার মাধ্যমে তুলে ধরলাম।
————————-
"ঢাকার পথে"
আব্দুল্লাহ আল মাসুম
———————-
আবার যেতে হচ্ছে আমায় ঢাকা,
সকাল বেলায় রাস্তা ভীষণ ফাঁকা।
 ঝড়ের বেগে যাচ্ছে গাড়ি ছুটে,
বিপদ হল একটি মেয়ে জুটে।
 সুন্দরী সে দুধের রঙের গা,
ভাব দেখিয়ে নাড়ায় নরম পা।
 চোখ ঘুরিয়ে বোঝায় যেন কি,
দেখে আমার লজ্জা লাগে ছিঃ।
 এমনি আমি লম্বা দাড়ির ছেলে,
তবু কেন পড়ছে গায়ে ঠেলে?
লাজ শরমের মাথা খেল নাকি?
ইচ্ছে করেই করছে চোখাচোখি।
 এমন বিপদ হয়নি আগে মোটে,
বাড়ল আরো – গোলাপ রাঙা ঠোঁটে।
 আজকে ঈমান থাকে কিবা যায়?
বসে বসে ভাবছি আমি তাই।
 জ্বাল দিলে দুধ যেমন বলক ওঠে,
তেমনি ভালবাসার কড়ি ফোঁটে।
 ধুর ধুর ধুর ভাবছি কিসব আমি,
ভাবনা ছেড়ে একটু এবার থামি।
 ঘুরে বসে জানলা দিয়ে দেখি,
যাচ্ছে উড়ে রঙ বেরঙের পাখি।
 ঝাপটে ডানা করছে খেলা হাঁস,
মাটির বুকে নরম সবুজ ঘাস।
 পথের ধারে বাবলা গাছের সারি,
হলদে পাখি দৃষ্টি নিল কাড়ি।
 দূরে দেখি বিঘা বিঘা ঘের,
মনটা বলে একটু পাশে ফের।
 তবু আমি দেখছি ধানের মেলা,
যায় গড়িয়ে একটুখানি বেলা।
 সহসা মেঘ আসল যেন ধেয়ে,
যেমনি জুটে গেল পাশে মেয়ে।
 গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হল শুরু,
মেয়ে দেখি আঁকছে চোখের ভুরু।
 চোখ ফিরিয়ে দেখি খেঁজুর গাছে,
হলদে রঙের কাঁদি ঝুলে আছে।
 পড়ল চোখে পটল খেতের মাচা,
খাচ্ছে ফিঙে পোকামাকড় কাচা।

বৃষ্টিফোঁটা পড়ছে খালে বিলে,
কয়েক ফোঁটা পড়ল মেয়ের ঠোঁটের কোনে তিলে।
 বিরক্তিতে উঠল সে ঠোঁট কেটে,
দেখামাত্র হকচকিয়ে জানলা দিলাম এঁটে।
 বৃষ্টি বিলাস শুরু হল বাসে,
সুন্দরী সেই মেয়ে বসা কাছে।
 ইচ্ছা করেই লাগায় গায়ে পা,
লজ্জায় আমার শিওরে ওঠে গা।
 একি বিপদ হল আমার আজি,
ঈমান খেল নষ্ট মেয়ে- পাজি।
 একটু হেসে দিল সাদা দাঁতে,
মায়ার পলক দেখি আঁখি পাতে।
 সরে গিয়ে আবার দেখি নদী,
গঙ্গাবুড়ি উঠত ফুসে আগের মত যদি।
 উঠত যদি আগের মতন জেগে,
জোয়ার ভাটা চলত সমান বেগে।
 ভাবছি এসব যখন ,
ঢাকার কাছে পৌছে গেছি তখন।
 বাসটি যথন সাভার গেল থেমে,
সেই মেয়েটি একটি চিঠি দিয়ে গেল নেমে।
 চিঠি পড়ে ঠান্ডা হয়ে গেলাম,
আজ যাত্রায় কত কিনা পেলাম।

চিঠিটা এমন…
সুন্দরী এক মেয়ে পেলে পাশে,
সব যুবকে তাকে ভালবাসে।
 আজকে তুমি পেয়েও হাতের কাছে,
দেখলে না কি আমার ভিতর আছে।
 তোমার মত ভাল ছেলে দেখে,
কে না বলো ভাল হতে শেখে?
এতদিনে মিটল মনের আশা,
উঠল জেগে সুপ্ত ভালবাসা।
 জেনে রেখো আমি নারী সতী,
কেউ আমারে করেনিকো ক্ষতি।
 কথা দিলাম শুদ্ধ হব আমি,
পর্দাশীলা হয়ে হব দামি।
 নাওনা তুলে তোমার যাত্রা রথে,
এই ঠিকানা দিলাম লিখে রইব চেয়ে পথে।
————————-
নিবাস: রসুলপুর, সাতক্ষীরা
 রচনাকাল- 12/06/16
এস পি গোল্ডেনে ডি-1 সিটে বসে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।