«

»

অক্টো. ০৬

বারবার ফিরে আসি যেখানে

আবহমানকাল ধরে বহমান নদীর ঝিলিমিলি জলে রক্তস্নান করা সূর্যাভা বলে তুমি সত্য,
নীল রঙের শাড়িতে সজ্জিত একখন্ড আকাশে একফালি চাঁদ হাসে ভরা পূর্ণিমায়, আর বলে- তুমি সত্য।
 সাদা মেঘের পালকির ভিতর থেকে উঁকি মারে তেজদীপ্ত তিমিরবিদারী, বিলিয়ে দেয় আলোকছটা সবুজের কোমল বুকে, জেগে ওঠে লতা, ঢোলকলমি, সবুজপত্র পল্লবে শোভিত বৃক্ষ, আর বলে- তুমি সত্য।
 বাঁকানো রঙিন ঠোঁটে শিকারের নেশায় সাদা ডানা মেলে উড়ন্ত পানকৌড়ি বলে- তুমি সত্য।
 পাহাড়ের কপালে ভালাবাসার চুম্বন এঁকে ছুটন্ত ভাসমান দুরন্ত মেঘ বলে – তুমি সত্য।
 স্নিগ্ধ সকালের ঝিরিঝিরি হাওয়ায় মিষ্টি গন্ধ ছড়ানো শিউলি হেসে বলে- তুমি সত্য।
 মরা খরায় যৌবন হারানো মাঠে বৃষ্টির স্পর্শে জেগে ওঠা মুক্তার দানা বলে- তুমি সত্য।
 সুক্ষ্ম নিয়মে ঘূর্ণায়মান তারকারাজির স্বতঃস্ফূর্ত আত্নসমর্পণ বলে – তুমি সত্য।
 নিটোল জলের মত স্বচ্ছ ঝকঝকে ইতিহাস বলে- তুমি সত্য।
 গভীর মাটির নিচে চাপা পড়ে থাকা নগ্ন, ও বিকৃত যৌনকামীদের অভিশপ্ত অধ্যায় বলে – তুমি সত্য।
 বিচার না পাওয়া এক সম্ভ্রমহীন অবিশ্বাসীর ক্রন্দন ও তার নায্যবিচারের দীর্ঘ অপেক্ষা বলে- তুমি সত্য।
 মেধাবী এক সংশয়বাদীর হতাশায় নষ্ট হওয়া তিক্ত জীবনের ব্যাকুল আর্তনাদ বলে- তুমি সত্য।
 লক্ষ্যহীন মানুষের ভোগবাদী জীবনের তমাল অন্ধাকারে মোড়ানো কালো অধ্যায়ে মুক্তির কামনা বলে- তুমি সত্য।
 অলৌকিকের উপর অলৌকিক প্রমাণ নিয়ে আবির্ভূত গ্রন্থ বলে- তুমি সত্য।
 আলো ছড়াবার আগেই কয়েকটি বাক্যে ঘুমভাঙা পাখিদের কলরবের ঘোষনা বলে- তুমি সত্য।
 অন্ধ, চোখ মেলো; বধির, কান খোলো; বিবেকহীন, হৃদয়ের জানালা খোলো;
দেখবে – তিঁনি সত্য।
 

২ মন্তব্য

  1. এম_আহমদ

    এখানে না অন্ধ পারে চোখ মেলতে

    না বধির পারে কান পেতে শোনতে

    যার হৃদয়ের জানালা বন্ধ হয়েছে

    সে জানালা খুলার কে আছে?

    যার হাতে তালা তার হাতে চাবি

    আহা! এ রহস্য-ভেদী ঘোর-পাক খায় সবই।

    1. ১.১
      সরকার সানজিদ আদভান

      ভালো লিখেছেন ভাই

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।