«

»

নভে. ০৭

সদালাপ-উচ্ছ্বাসঃ শ্রদ্ধেয়া কনিকা ফারজানার লেখা নিয়ে কিছু কথা

সবাইকে ঈদ মুবারক। ‘সদালাপ উচ্ছ্বাস’ সদালাপের মতনই ভাল হয়েছে। সম্পাদক ও এই ম্যাগাজিন নিয়ে যাঁরা কাজ করেছেন তাঁদের সবাইকে অশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পারিবারিক ব্যস্ততার কারণে আমি সদালাপে নিয়মিত নই, মন্তব্য করা তো দূরের কথা। তবে ‘সদালাপ’ কে আমি পছন্দ করি এর মানসম্মত ও রুচিশীল লেখার জন্য, যা কিনা Intellectual stimulation দিয়ে সাংসারিক একঘেয়েমী থেকে কিছু সময়ের জন্য হলেও আমাকে ফুরসৎ দেয়। আর সদালাপের অসাধারণ মন্তব্যগুলোও আসল লেখার চাইতে কোন অংশে কম নয়।

ম্যাগাজিনের লেখাগুলো ধীরে ধীরে পড়ছি, কখনো বৈকালিক চায়ের সাথে কিংবা দুপুরের অলস-বিশ্রাম-কালে। শেষ করতে সময় লাগবে। এ পর্যন্ত একটি লেখাই পড়েছি, তা হলো কনিকা ফারজানার চাইল্ডকেয়ার বিষয়ক লেখাটি। অত্যন্ত সময়োপযোগী, প্রায়শঃ অবহেলিত অথচ গুরুত্বের দিক দিয়ে কোন অংশেই কম নয়, এরকম একটি প্রসংগ নিয়ে তিনি সাহসী কলম হাতে নিয়েছেন। বলা যেতে পারে একারণেই ম্যাগাজিনের শেষের দিকে স্থান পাওয়া হলেও আমি পড়া শুরু করেছি এই লেখাটি দিয়ে। আধুনিক শিক্ষিত মেয়েরা বর্তমানে দ্বিধা- দ্বন্দে পড়েন পেশাগত জীবন ও মাতৃত্বের ব্যালান্স মেইনটেইন করতে। কিন্তু কোনভাবেই তাতে কল্যান হচ্ছে না; না মায়ের, না বাচ্চার। লেখিকা অত্যন্ত দক্ষতার সাথে ও হৃদয়গ্রাহী রূপে বিষয়টিকে উপস্থাপন করেছেন এবং একটি চরম সত্য কথা বলেছেন। আর তা হলো মায়ের যে চিরন্তন ভূমিকা- ত্যাগ। তাঁর লেখা থেকে এ প্রসংগে হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া কয়েকটি বাক্য উল্লেখ না করে পারছি না-

It would have been nice to have everything in life at the same time but that’s not how things work in our imperfect world and that is where the choice or priorities we make become so crucial.

Our children will only be children ONCE. Don’t miss it.

অনেক সময় ভাল কিছুর জন্য, সামগ্রিক কল্যানের জন্য কাউকে না কাউকে ত্যাগ স্বীকার করতেই হয়। তবে আগে এই ত্যাগটি ছিল সহজাত, মাতৃত্বের অন্তঃস্থল থেকে উৎসারিত। কিন্তু বর্তমানে জটিল সামাজিক সিস্টেমের কারণে অনেক সময় এই ত্যাগ স্বীকার করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়, মা’দের ত্যাগ স্বীকার করা এবং তাদের এই ত্যাগ স্বীকারকে যথাযথ মর্যাদায় এপ্রিসিয়েট করার জন্য সামাজিক আন্দোলন দরকার। হয়ত অনেকে শিক্ষিত মায়েরা ত্যাগ স্বীকার করছেনও কিন্তু আনন্দহীনভাবে, কেরিয়ারের প্রতি পিছুটান নিয়ে। ফলে Right Spirit নিয়ে মায়ের ভূমিকা পালন করতে পারছেন না। মা হওয়া এবং এজন্য ত্যাগ স্বীকার করা যে একটি আনন্দের বিষয়, ক্রমশঃ হারিয়ে যাওয়া এই ধারণাটি তাঁর লেখার মাধ্যমে আমরা যেন নতুন করে আবিষ্কার করলাম।

একজন পূর্নাংগ নারী-মানুষ হতে ভাল মা হওয়া অত্যন্ত জরুরী, নিজের জন্য যেমন, সমাজের জন্যও তেমনি। তাঁর লেখাটি নিঃসন্দেহে নারীদের ভাল মা হতে উৎসাহিত করবে। আর বিখ্যাত সব শিশু মনোবিশেষজ্ঞদের গবেষণার বিষয়গুলোকে তিনি অত্যন্ত মুন্সিয়ানার সাথে সহজ ও প্রাঞ্জলভাবে পাঠক সাধারণের সামনে উপস্থাপন করেছেন, যা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার। লেখাটি পড়ার পর আমার একমাত্র মেয়েকে আমি যেন নতুন করে আবিষ্কার করলাম। আমার ত্যাগ তাকে ভাল মানুষ হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করবে এটা ভাবতেই মন ভরে উঠল। শ্রদ্ধেয়া কনিকা ফারজানা এরকম আরো অনুপ্রেরণামূলক লেখা লিখে শিক্ষিত, সচেতন মা’দের ঘরে থেকে Right Spirit নিয়ে মায়ের ভূমিকা পালনে আগ্রহান্বিত করে সামাজিক আন্দোলনে রূপ দান করুন এই কামনা করছি। আরেকটি কথা না বললেই নয়, একজন নারীর ভাল মা হওয়ার ত্যাগ স্বীকারের পেছনে কিন্তু সন্তানের বাবার সাপোর্ট অত্যন্ত জরুরী। তাই এ লেখাটির বার্তা কার্যকর করতে বাবাদেরও ভূমিকা রয়েছে বৈকি!

৯ মন্তব্য

এক লাফে মন্তব্যের ঘরে

  1. বুড়ো শালিক

    আপনার লেখাটাও অসাধারণ হয়েছে! সদালাপে আরেকটু নিয়মিত হবেন আশা করি…

    1. ১.১
      এস. এম. রায়হান

      @বুড়ো শালিক: সহমত।

  2. শাহবাজ নজরুল

    একজন পূর্নাংগ নারী-মানুষ হতে ভাল মা হওয়া অত্যন্ত জরুরী, নিজের জন্য যেমন, সমাজের জন্যও তেমনি। তাঁর লেখাটি নিঃসন্দেহে নারীদের ভাল মা হতে উৎসাহিত করবে। আর বিখ্যাত সব শিশু মনোবিশেষজ্ঞদের গবেষণার বিষয়গুলোকে তিনি অত্যন্ত মুন্সিয়ানার সাথে সহজ ও প্রাঞ্জলভাবে পাঠক সাধারণের সামনে উপস্থাপন করেছেন, যা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার। লেখাটি পড়ার পর আমার একমাত্র মেয়েকে আমি যেন নতুন করে আবিষ্কার করলাম। আমার ত্যাগ তাকে ভাল মানুষ হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করবে এটা ভাবতেই মন ভরে উঠল। শ্রদ্ধেয়া কনিকা ফারজানা এরকম আরো অনুপ্রেরণামূলক লেখা লিখে শিক্ষিত, সচেতন মা’দের ঘরে থেকে Right Spirit নিয়ে মায়ের ভূমিকা পালনে আগ্রহান্বিত করে সামাজিক আন্দোলনে রূপ দান করুন এই কামনা করছি। আরেকটি কথা না বললেই নয়, একজন নারীর ভাল মা হওয়ার ত্যাগ স্বীকারের পেছনে কিন্তু সন্তানের বাবার সাপোর্ট অত্যন্ত জরুরী। তাই এ লেখাটির বার্তা কার্যকর করতে বাবাদেরও ভূমিকা রয়েছে বৈকি!

    যথার্থই বলেছেন। সুন্দর রিভিউ।

  3. সাদাত

    মূল লেখা এবং রিভিউ দুটোই চমৎকার এবং উপভোগ্য!

    দুজনেরই লেখার মান যথেষ্ট উন্নত। দুজনই পরিচ্ছন্ন চিন্তাধারা লালন করেন এবং নিজ বক্তব্যকে সহজ সরল ভাষায় পাঠকের সামনে পরিবেশন করতে পারেন। আসলেই যে, যে রাঁধে সে চুল ও বাঁধে- তাদের লেখায় বিষয়টি আরো পরিস্ফুট হলো। সদালাপে দুজনের আরো আরো চিন্তাশীল লেখা প্রত্যাশা করছি।

    শেষে একটি ছোট অনুরোধ, আমাদের মতো সাধারণ পাঠকদের জন্য বাংলা লেখা হজমের অধিক উপযোগী- এই ব্যাপারে আপনাদের সদয়দৃষ্টি আকর্ষণ করছি..

    1. ৩.১
      বুড়ো শালিক

      @সাদাত ভাই: সহমত। স্পেশ্যালি নিচের অংশে:

      আমাদের মতো সাধারণ পাঠকদের জন্য বাংলা লেখা হজমের অধিক উপযোগী- এই ব্যাপারে আপনাদের সদয়দৃষ্টি আকর্ষণ করছি..

      🙂

  4. কনিকা ফারজানা

    Thank you Shamima for your kindest review. This will act as an inspiration for a newbie like me to continue. I feel the review was much better than the real write up. 🙂

    There are great points that transpired in your write up and I could not agree with you more on the right spirit of motherhood “অনেক সময় ভাল কিছুর জন্য, সামগ্রিক কল্যানের জন্য কাউকে না কাউকে ত্যাগ স্বীকার করতেই হয়। তবে আগে এই ত্যাগটি ছিল সহজাত, মাতৃত্বের অন্তঃস্থল থেকে উৎসারিত। কিন্তু বর্তমানে জটিল সামাজিক সিস্টেমের কারণে অনেক সময় এই ত্যাগ স্বীকার করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়, মা’দের ত্যাগ স্বীকার করা এবং তাদের এই ত্যাগ স্বীকারকে যথাযথ মর্যাদায় এপ্রিসিয়েট করার জন্য সামাজিক আন্দোলন দরকার। হয়ত অনেকে শিক্ষিত মায়েরা ত্যাগ স্বীকার করছেনও কিন্তু আনন্দহীনভাবে, কেরিয়ারের প্রতি পিছুটান নিয়ে। ফলে Right Spirit নিয়ে মায়ের ভূমিকা পালন করতে পারছেন না। মা হওয়া এবং এজন্য ত্যাগ স্বীকার করা যে একটি আনন্দের বিষয়, ক্রমশঃ হারিয়ে যাওয়া এই ধারণাটি তাঁর লেখার মাধ্যমে আমরা যেন নতুন করে আবিষ্কার করলাম।”

    We also need to remember that in today’s complex & competitive world mothers need help from all corners, fathers, relatives, society and Government (to enact laws so that working mothers wouldn’t suffer due to a CV-gap to allow flexible maternity benefits etc etc). We need to keep our collective commitment to the children to give them a happy & well rounded childhood, a childhood that is not permitted to simply fade away.

    @ Sadat
    I am working on my Bangla typing 🙂

  5. শামস

    লেখা সুন্দর হয়েছে। আরো লিখুন।

    তাই এ লেখাটির বার্তা কার্যকর করতে বাবাদেরও ভূমিকা রয়েছে বৈকি!

    বাবাদের সদালাপে তুলনামূলকভাবে বেশী সময় দেয়া হচ্ছে! 🙂

  6. জান্নাতুন নাঈম

    thanks.

  7. liakat jowardar

    পবিত্র মাহে রমজানের সাধারণ কিছু ভুলসংক্রান্ত লেখাটি ভাল লাগলো। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Comments have been disabled.